তারিখ : ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ভাইকে খুনের সন্দেহে ছোট ভাই গ্রেফাতার

ভালুকায় ভাইকে খুনের সন্দেহে ছোট ভাই গ্রেফাতার
[ভালুকা ডট কম : ২৩ অক্টোবর]
ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ীর ঝালপাজা নুন্দীপাড়া গ্রামের মহসিন আলী হত্যা সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে নিহতের ছোট ভাই,উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী শেখ(৫৪) কে মঙ্গলবার রাতে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে ।

ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো:মাইন উদ্দিন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন,মহসিন হত্যা মামলার সাথে যারা জড়িত তাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্যে পুলিশ কাজ চলছে। হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য রমজান আলী মাস্টারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জমি জমা ও টাকা পয়সার দ্বন্দ্ব নিয়েই মুলত এ হত্যাকান্ডটি ঘটেছে।

নিহতের স্ত্রী ও পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, এক সময় নিহত মহসিন আলীর পরিবার হত দরিদ্র ছিল। মহসিনসহ তিন ভাই বিদেশে কাজ করে সব টাকা পয়সা রমজান আলী নামে পাঠাতো। রমজান আলী ঝালপাজা সরকরী প্রাথমকি বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসাবে কর্মরত ছিল। বড় ভাই দেশের ফেরার পর তাদের পাঠানো টাকা পয়সা জমি জমার হিসাব চাইলে রমজান আলীর সাথে দ্বন্দ্ব হয়। এ নিয়ে ভাইদের মাঝে দীর্ঘ দিন অর্ন্তঃদ্বন্দ্ব চলে আসছিল।

৩আক্টোবর দুপুরে প্রতিবেশিরা মহসিনের গোয়ালঘরে গরুর ডাক শুনে বাড়িতে যায়। বাড়িতে কোনো লোকজন না পেয়ে খোলা দরজা দেখে এগিয়ে গেলে মহসিনকে খাটের উপর হাত পা কাপড় দিয়ে বাঁধা অবস্থায় দেখেতে পায়। এবং তার গলায় নামাজের রুমাল পেঁচানো ও বুকের মাঝে আঘাতের চিহ্ন ছিল। এ ঘটনায় মহসিন আলীর স্ত্রী পারভীন আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

পরে মোবাইলের বিভিন্ন সূত্র ধরে ইলেট্রনিক ডিভাইজের ব্যবহার,নিহতের স্ত্রী ও ছেলে-মেয়েদের সাথে কথা বলে পুলিশ রমজান আলীকে গ্রেফতার করে। রমজানকে পুলিশ গ্রেফতার করার পর পরিবারিক ভাবে পারভীনকে বিভিন্ন ভাবে চাপ দিলে তিনি মানসিক ভাবে গুরুতর আহত হয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। তাঁকে রাতেই প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পরে সকালে ময়মনসিংহ কমিউনিটি বেইজ মেডিক্যাল হাসপাতালে নেয়ার পর তার অবস্থা আশঙ্কা জনক হয়ে পড়লে সবশেষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রমজান আলী জানান, আমাকে ষড়যন্ত্র করে ভাই হত্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। আমি এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত নই।মামলার তদন্তকারী অফিসা ইকবাল হাসান জানান, অনেক কিছু যাঁচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে তাঁকে সন্দেহ করে আটক করা হয়েছে। খুনে রহস্য উদঘাটনের জন্য তাঁকে ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই