তারিখ : ১৮ নভেম্বর ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকার বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর আফসার এর বার্ষিকী আজ

ভালুকার বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর আফসার এর ২৬ তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ
[ভালুকা ডট কম : ০৬ সেপ্টেম্বর]
মহান মুক্তিযুদ্ধে দক্ষিন ময়মনসিংহে গঠিত অনিয়মিত আফছার বাহিনীর অধিনায়ক ও সাবেক ভালুকা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর আফসার উদ্দিন আহমেদ এর ২৬ তম মৃত্য বার্ষিকী আজ ৬ সেপ্টেম্বর।

দিবসটি পালনের জন্য তাঁর বাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত আফসার স্মৃতি সংসদ মরহুমের ভালুকাস্থ বাসভবন সংলগ্ন মসজিদে বাদ যোহর মিলাদ-দোয়া মাহফিল ছাড়াও বাসভবন সংলগ্ন মরহুমের কবর জিয়ারত ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে।এছাড়াও মরহুম আফসার উদ্দিন আহমেদ এর শহীদ পুত্র নাজিম উদ্দিন আহমেদ এর নামে ভালুকার মল্লিকবাড়ীতে প্রতিষ্ঠিত শহীদ নাজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের উদ্যোগে এক মিলাত ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হইয়াছে।

উল্লেখ্য ১৯৭১ সনে তৎকালীন ভালুকা থানা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বৃটিশ ভারত সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সুবেদার মেজর আফসার উদ্দিন আহমেদ ২৩ এপ্রিল ১৯৭১ সনে তৎকালীন স্বাধীন বাংলা সরকার ও ভারত সরকারের কোন প্রকার সাহায্য সহযোগীতা ছাড়াই ভালুকা থানার ১১ নং রাজৈ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হামিদ মেম্বারের কাছ থেকে সংগৃহিত ১টি রাইফেল ও ৯জন সদস্য নিয়ে ভালুকার মল্লিকবাড়ীতে গঠন করেন মুক্তিযুদ্ধে আফছার বাহিনী। এই বাহিনী ময়মনসিংহের গফরগাঁও, ত্রিশাল ও ভালুকা তৎকালীন ঢাকা সদর উত্তর মহকুমার কাপাসিয়া, শ্রীপুর, কালিয়াকৈর, টাঙ্গাইল জেলার বাসাইল ও কালিহাতী থানা এলাকা ছিল বাহিনীর যুদ্ধ এলাকা।

বিভিন্ন ভাবে আত্মসমর্পনকৃত পাক ও রাজাকার বাহিনীর কাছ থেকে সংগৃহিত অস্ত্র ও গোলাবারুদ নিয়ে বাহিনীর সদস্য সংখ্যা এক পর্যায়ের ৪ হাজার ৫০০ তে উন্নীত হলে বাহিনীকে ৫টি ব্যাটালিয়ানে ভাগ করে প্রতি ব্যাটালিয়নে ৫টি করে কোম্পানী অন্তর্ভূক্ত ছিল। তাঁর এই বাহিনী উল্লেখিত থানা এলাকায় শত শত পাক ও রাজাকার বাহিনীর সদস্যকে সন্মুখ যুদ্ধে আত্মসমর্পন করতে বাধ্য করে।

পাক ও রাজাকার বাহিনীর সাথে শতাধিক সন্মুখ যুদ্ধে আফছার বাহিনীর ৩২ জন সাহসী মুক্তিসেনা শাহাদাত বরণ করেন। এই শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে ভালুকা পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড চৌরাস্তায় নির্মাণ করেন শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিসৌধ এবং ভালুকা উপজেলার ২৬টি সড়কের নাম করণ করা হয় শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামে।

১৯৭২ সনে ময়মনসিংহ রাবেয়া গার্লস স্কুলে (মযমনসিংহ মহিলা ক্যাডেট কলেজ) আফসার বাহিনীর সদস্যরা তৎকালীন উপ রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম এর কাছে অস্ত্র ও গোলাবারুদ জমা দেন। এ সময় উপ রাষ্ট্রপতি এ অনিয়মিত আফসার বাহিনীকে ১১ নং সেক্টরে অন্তভূক্ত করে এফ. জে ১১, সাব সেক্টর হিসেবে ঘোষণা করেন এবং বাহিনীর সদস্যদের প্রশংসা পত্র দেন।

আফসার উদ্দিন আহমেদ ১৯৯০ সনে ভালুকা উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এই বীর মুক্তিযোদ্ধা আফসার উদ্দিন আহমেদ ১৯৯৩ সনের ৬ সেপ্টেম্বর ৭১ বৎসর বয়সে বার্ধক্য জনিত কারনে ইন্তেকাল করেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই