তারিখ : ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নান্দাইলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার পরেও বিদ্যুৎ বিল

নান্দাইলে সেচ লাইনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার পরেও বিদ্যুৎ বিল,গ্রাহক হয়রানির শিকার
[ভালুকা ডট কম : ১৭ জুন]
কিশোরগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন নান্দাইল পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের এক শ্রেণীর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গাফিলতির কারনে সেচ লাইন কাটা থাকার পরেও বিদ্যুৎ বিল আদায় করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের ফুলবাড়ীয়া গ্রামের মো. আব্দুর রহিমের পুত্র আবু সিদ্দিক পল্লী বিদ্যুৎ হিসাব নং ০৬-৮২০-২৫০০ এলটি-বি(সেচ) লাইন অভিযোগ করে জানান, ২০১৮ সালে সেচ লাইন বন্ধ থাকার পরেও ৬ মাসের বিদ্যুত বিল ৪ হাজার ৬৮৮ টাকা পরিশোধ করতে হয়েছে। বিল পরিশোধের পর গত ২০/০১/২০১৯ইং তারিখে আবু সিদ্দিক সেচ মিটার পরিবর্তন করার জন্য নান্দাইল জোনাল অফিসে আবেদন করার ৬ মাস অতিবাহিত হলেও পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ মিটারটি পরিবর্তন করে দেয়নি।

উক্ত গ্রাহক অভিযোগে আরও জানান, গত ০৮/০৪/২০১৯ইং তারিখে সেচ চলাকালিন সময়ে বিল পরিশোধ থাকার পরেও অজ্ঞাত কারনে হঠাৎ করে সেচ লাইনটি কেটে ফেলায় কৃষকদের সীমাহীন দূর্ভোগ সহ ফসল নষ্ট হয়ে যায়।

উল্লেখিত সময়ে লাইন কাটা থাকার পরেও পল্লী বিদ্যুৎ অফিস মনগড়া নিয়মিত বিদ্যুৎ বিল তৈরী করে যাচ্ছে। এতে তিনি মারাত্মকভাবে আর্থিক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন বলে অভিযোগকারী আবু সিদ্দিক জানান। এ ব্যাপারে তিনি পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই