তারিখ : ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

চাকুরীচ্যুত এক কনস্টেবলের ব্যতিক্রম আকুতি

চাকুরি ফিরে পাওয়ার জন্য  
চাকুরীচ্যুত এক কনস্টেবলের ব্যতিক্রম আকুতি
[ভালুকা ডট কম : ১৭ জুন]
মাথার একপাশে অভিনব চুলের কাটিংয়ে ইংরেজিতে আইজিপি লিখে আইজিপির দৃষ্টি কামনায় রাজনৈতিক নেতাদের ধারেধারে ঘুরছে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার বালিপাড়া ইউনিয়নের চাকুরীচ্যুত এক কনস্টেবল শাহাদাৎ আলম।

জানাগেছে,গত জোট সরকারের আমলে পুলিশ পুত্র প্রাক্তন পুলিশ কনস্টেবল শাহাদাৎ আলমকে (৩৬৩৮৩য় এপিবিএন) রাজনৈতিক কারণে তাকে চাকুরীচ্যুত করা হয়েছিল। চাকুরী ফিরে পাওয়ার আশায় এর পর থেকেই রাজনৈতিক নেতাদের পিছনে ঘুরে দিন কাটাচ্ছে। হারিয়ে যাওয়া চাকুরী ফেরত পাওয়ার আবেদনপত্রটিতে সাবেক ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান বিষয়টি গভীরভাবে খোঁজ খবর নিয়ে মানবিক কারণে গত ১৭  মার্চ  ২০১৭ইং তারিখে ধরিম/ম/ডিও২০১৭/৫৪ নং স্বারকে একখানা ডিও লেটার প্রদান করেন। সেই ডিও লেটারে আইজিপি বরাবরে ১৭ সালের ১০এপ্রিল মার্ক করেছেন বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জান খান এমপি।

একই সাথে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতির ছেলে  সংসদ সদস্য ১৬৫ কিশোরগঞ্জ-৪ রেজওয়ান আহমদ তৌফিক চাকুরী যাওয়ার ঘটনাটি শুনে দয়ার দৃষ্টি ও কল্যাণ কামনা পূর্বক পূনঃ নিয়োগ আবেদন পত্র খানাতে ২০১৭ সালের ১ ফের্রুয়ারী বিবেচনার জন্য সুপারিশ করেন। পরে  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয় দপ্তরে  আবেদনপত্র খানা ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল ৩৯০ নম্বরে ডায়রীভূক্ত করা হয়। পুনঃনিয়োগ প্রসঙ্গে শাহাদাৎ এর আবেদন পত্রটি আনুসাঙ্গিক কাগজ পত্রাদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখাদ্বয়ের উর্ধ্বতম কর্মকর্তাগণ ১৭ সালের ১৬ এপ্রিল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন নিরাপত্তা বিভাগ পুলিশ শাখা (৫) হইতে ৪৪.০০.০০০০.০৯৮.০০৬.১২ (অংশ-১)-২৫৪ স্মারকে আইজিপি বরাবরে রাজনৈতিক কারনে জোর পূর্বক চাকুরি হতে অব্যাহতিপ্রাপ্ত (কনস্টেবল )পদে পুনঃবহালের আবেদন করেন সিনিয়র সহকারী সচিব খাদিজা তাহেরা ববি। স্বাক্ষরিত পত্রে বর্ণিত বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো মর্মে পত্রটি পুলিশ সদর দপ্তরে প্রেরণ করেন।

এত কিছু করার পরও  তাকে চাকুরিতে পুনঃনিয়োগ প্রদান করা হয়নি। দীর্ঘদিন যাবত এসব কাগজপত্র নিয়ে মানুষের ধারে ধারে ছোটা ছুটি করে সে আজ বড্ড ক্লান্ত ।অসহায়িত্ব জীবন যাপন করে কেদে কেদে এ কনস্টেবল প্রতিনিধিকে বলেন আমার জীবন কি এভাবেইঘুরে ঘুরে  শেষ হবে।  এইচ.এস.সি ও এস.এস.সি পাশ দুইটি বিবাহযোগ্য কন্যাসহ মোট (৭) সদস্যবিশিষ্ট পরিবারের বোঝা মাথায় নিয়ে শাহাদাৎ বর্তমানে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। বহুচেষ্টা করেও সরাসরি আইজিপির দপ্তরে ডুকতে না পেরে পত্রিকার মাধ্যমে নিজের আকুতি জানাতে মাথার একপাশে ইংরেজিতে আইজিপি লিখে সাংবাদিকদের স্মরণাপন্য হয়েছেন।

শাহাদাৎ আলম বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী ও দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমার মাতৃতূল্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। গতিশীল নেতৃত্বে ও যুগোউপযোগি বৈপ্লবিক সঠিক দিক নির্দেশনায় আমাদের বাংলাদেশের পুলিশি সেবা ও মান উন্নত দেশের দ্বারপ্রান্তে উপনীত হওয়ায় আমি একজন দেশপ্রেমিক প্রাক্তন পুলিশ সদস্য হিসেবে গর্ব ও অহংকার বোধ করি।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

পাঠক মতামত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই