তারিখ : ১৯ জুন ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বদলগাছী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি এখন নিজেই রুগ্ন

বদলগাছী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি এখন নিজেই রুগ্ন
[ভালুকা ডট কম : ০৬ এপ্রিল]
নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বর্তমানে চিকিৎসক সংকটসহ বিভিন্ন সমস্যায় এখন নিজেই রুগ্ন রোগীতে পরিণত হয়েছে। সঠিক চিকিৎসা দেবার মতো কেউ নেই। স্বাস্থ্য মানুষের মৌলিক অধিকারের মধ্যে অন্যতম একটি অধিকার কিন্তু সঠিক ভাবে পূরণ করা হচ্ছে না জনগণের এই মৌলিক অধিকারটি। পর্যাপ্ত চিকিৎসক না থাকায় মানসম্মত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বদলগাছী উপজেলাবাসি।

উপজেলায় প্রায় ২লক্ষ ৩০ হাজার মানুষ বসবাস করছেন তাদের চিকিৎসা সেবার জন্য একমাত্র স্থান উপজেলা সদর হাসপাতাল। ৫০ শয্যার এই হাসপাতালটিতে ২১ জনের স্থলে বর্তমানে কর্মরত রয়েছেন মাত্র ৪জন ডাক্তার। উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: অফিসার ডা. মো: মনজুর এ মুরশেদ, জুনিয়র কনসালটেন্ট (অর্থো) ডা. মো: সাহাদাত হোসাইন, মেডিক্যাল অফিসার ডা: মো: রফিউল আলম, ডা: এ কে এম শামসুল আলম, সহকারী সার্জন (ইমার্জেন্সী) ডা: মাহমুদ আলী কর্মরত রয়েছেন।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ডাক্তারদের কর্মরত তালিকা অনুযায়ী দেখা যায় জুনিয়র কনসালটেন্ট (পেডিয়াট্রিক্স) ডা: রতন কুমার সিংহ ২০১৩ সালের অক্টোবরের ১০ তারিখে যোগদান করলেও তখন থেকে প্রেষণে নওগাঁ সদর হাসপাতালে কর্মরত আছেন। যোগদানের পর থেকে তিনি প্রেষণে নওগাঁ সদর হাসপাতালে কর্মরত থাকায় অত্র উপজেলার শিশুরা মানসম্মত চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর একটি সূত্রে জানা গেছে, বদলগাছীতে প্রাইভেট চিকিৎসায় তেমন অর্থ উপার্জন না হওয়ায় ডাক্তাররা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে অনত্র বদলি নেন। ডেন্টাল সার্জন ডাঃ ফেরদৌস আমিন ২০১০ সালের ডিসেম্বরের ১ তারিখে অত্র স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যোগদান করলেও কিছু দিন পর থেকে কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে নিরুদ্দেশ হয়ে রয়েছেন। এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২১ টি পদের স্থলে মাত্র ৪ জন ডাক্তার কর্মরত রয়েছেন। এ ছাড়া সরকার লাখ লাখ টাকা ব্যয়ে ডাক্তারদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ক্যাম্পাসে অবস্থান করার কোয়ার্টার স্থাপন করেছেন। নিয়ম থাকলেও কেউই কোয়ার্টারে অবস্থান করেন না। যে কয়জন ডাক্তার আছেন তারাও কোয়ার্টারে অবস্থান না করার কারণে এলাকার জরুরি ও ভর্তিরত রোগীরা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মনজুর এ মুরশেদ বলেন, ডাক্তার সংকট এর কারণে চিকিৎসা সেবা দেওয়া অতি কষ্টকর হয়ে পড়েছে। বর্তমানে এই ৫০ শয্যা হাসপাতালে মাত্র ৪ জন মেডিক্যাল অফিসার ও ৩ জন মেডিক্যাল এ্যাসিসটেন্ট দ্বারা সকল প্রকার চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছি। যার কারণে মানসম্মত চিকিৎসা সেবা দেওয়ার ইচ্ছা থাকলেও তা করা সম্ভব হচ্ছে না।

নওগাঁ জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোমিনুল ইসলাম বলেন, ডাক্তার সংকট গোটা নওগাঁ জেলাতেই। তবে আগামীতে ডাক্তার নিয়োগ হলে এ সংকট থাকবে না। এলাকার সচেতন মহল মনে করেন, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ দ্রুত অত্র স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শুন্য পদে ডাক্তার নিয়োগ ও ডাক্তারদের ক্যাম্পাসে অবস্থান নিশ্চিত করলে স্বাস্থ্য সেবার মান আরো বাড়বে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অনুসন্ধানী প্রতিবেদন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই