তারিখ : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ

জাতীয় শোকদিবসে সরকারী আদেশ অমান্য
ভালুকায় দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ
[ভালুকা ডট কম : ১৭ আগস্ট]
ভালুকায় সরকারী নির্দেশ অমান্য করে জাতীয় শোকদিবসে দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যক্তি উদ্যোগে আয়োজিত কাঙ্গালীভোজে যোগদানের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষার্থীদের নিয়ে রোদ ও প্রচন্ড গরমে কয়েক কিলোমিটার দুরে ব্যক্তি উদ্যোগে আয়োজিত কাঙ্গালীভোজে যোগদান করার অভিযোগে নির্বাহী কর্মকর্তা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্ত পূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন। এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ঘটনার ব্যাপারে ইউনিয়নের সোনাখালী চৌরাস্তায় শোকদিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনাসভায় নিন্দা জানানো হয়েছে।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, বুধবার সারাদেশের ন্যায় ভালুকার সর্বত্রই সরকারীভাবে জাতীয় শোকদিবস পালিত হয়। অভিযোগে প্রকাশ, উপজেলার আঙ্গারগাড়া ইউনাইটেড উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগ নেতা দাবিদার ও মনোনয়ন প্রত্যাশী এমএ ওয়াহেদ বড় ধরনের কাঙ্গালীভোজের আয়োজন করেন। এরই প্রেক্ষিতে ওই ইউনিয়নে প্রতিষ্ঠিত আঙ্গারগাড়া শহীদ মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয় ও আল কুদ্দুস দাখিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষ রহস্যজনক কারণে তাদের স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ সরকারী নির্দেশ অমান্য করে প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে প্রচন্ড রোদ ও গরমে শিক্ষার্থীদের নিয়ে ওই কাঙ্গালীভোজে যোগদান করেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের সোনাখালী চৌরাস্তায় শোকদিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনাসভায় ওই ঘটনার ব্যাপারে তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে। এ সময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: গোলাম মোস্তফা, পৌর মেয়র ডা.একেএম মেজবাহ উদ্দিন কাইয়ূম, উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক মো: কাজিম উদ্দিন ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মো: ছাইফুল ইসলামসহ সকল ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে আঙ্গারগাড়া শহীদ মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুল আলীম ও আল কুদ্দুস দাখিল মাদরাসার সুপার সানোয়ার হোসেনকে তাদের মোবাইলে বার বার চেষ্টা করেও রিসিভ না করায় তাদের মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

স্থানীয় চেয়ারম্যান মো: ছাইফুল ইসলাম জানান, আঙ্গারগাড়া শহীদ মুক্তিযোদ্ধা উচ্চ বিদ্যালয় ও আল কুদ্দুস দাখিল মাদরাসা কর্তৃপক্ষ সরকারী প্রোগ্রাম বাদ দিয়ে তাদের প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে পাঁচ কিলোমিটার দূরে রোদ ও প্রচন্ড গরমে শিক্ষার্থীদের নিয়ে এমএ ওয়াহেদের উদ্যোগে আয়োজিত কাঙ্গালীভোজে যোগদান করে। বিষয়টি জানতে পেরে খোঁজ নিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়ার পর ঘটনাটি নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করি। তিনি আরো বলেন, তিনি ওই প্রতিষ্ঠানে ৭ হাজার লোকের জন্য কাঙ্গালীভোজের আয়োজন করেন। লোক সংখ্যা ভাড়ানোর জন্য তিনি শিক্ষকদের গাড়ি ভাড়া দিয়ে ওই দুই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের আনেন।

উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মো: শামছুল হক মনি মাষ্টার জানান, ওই দুটি প্রতিষ্ঠানের প্রধানগন এমএ ওয়াহেদের নির্দেশনায় তাদের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ব্যক্তি উদ্যোগে আয়োজিত কাঙ্গালীভোজে যোগদান করে। যা সরকারী নির্দেনার পরিপন্থী। এর প্রতিবাদ করায় শিক্ষার্থীদের দিয়ে সাজানো মানববন্ধন করে আমার অপসারন দাবি করা হচ্ছে। আমার বিরুদ্ধে একটা পক্ষ বিভিন্ন প্রপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। আমি এসব ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

এমএ ওয়াহেদ জানান, ওই দুই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা র‌্যালী করে তার প্রোগ্রামে যোগদান করেছে তাতে  দুষের কি?

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ চান মিয়া জানান, প্রতিষ্ঠান দু’টির কর্তৃপক্ষ সরকারী আইন লঙন করে শিক্ষার্থীদের রোদ ও এই প্রচন্ড গরমে কয়েক কিলোমিটার দূরে ওই প্রতিষ্ঠানে নিয়ে যাওয়া ঠিক হয়নি। বিষয়টির ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে সমযোতার মাধ্যমে সমাধানের চেষ্টা করছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল জানান, বিষয়টি নলেজে আছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য শিক্ষা কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।#






সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৩২ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই